সমাস কাকে বলে ? কত প্রকার ও কি কি ?

সমাস 



সমাস 

 সমাস শব্দের অর্থ সংক্ষেপ, মিলন  এবং একাধিক পদ কে এক পদী করণ । এক কথায় বলা যায় যে ,অর্থ হয় এমন কতো গুলা শব্দ একএে যুক্ত হয়ে একটি বড় শব্দ গঠন এর প্রক্রিয়া কে সমাস বলে । যেমন:- 

  • গাছে পাকা = গাছ পাকা 
  • বিলাত হইতে ফেরত = বিলাত ফেরত 
সমস্ত পদ বা সমাসবদ্ধ পদ

 সমাসনিষ্পন্ন পদকে সমস্ত পদ বলে । যেমন:-

  • বিলাত হতে  ফেরত= বিলাতফেরত  এখানে বিলাতফেরত শব্দটি হচ্ছে সমস্তপদ । 
সমস্যমান পদ 

 যে কয়েকটি পদের সমাহারে সমাস হয় তাদেরকে সমস্যমান পদ বলে । যেমন:-

  • বিলাত হতে ফেরত = বিলাতফেরত । এখানে বিলাত, হতে , ও ফেরত পদগুলা সমস্যমান পদ । 
ব্যাসবাক্য

 সমস্তপদকে ভেঙ্গে যে বাক্যাংশ পাওয়া যায় থাকেই ব্যাসবাক্য বলে । ব্যাসবাক্যের আরেক নাম হলো সমাসবাক্য বা বিগ্রহবাক্য । যেমন:-

  • বিলাত হতে ফেরত = বিলাতফেরত । এখানে "বিলাত ফেরত হতে ফেরত" হলো ব্যাসবাক্য ।
পূর্বপদ ও উওর পদ 

 সমাসযুক্ত পদের প্রথম অংশকে  পূর্ব পদ এবং পরবর্তী অংশকে উওর পদ বা পরপদ বলে । যেমন:-

  • বিলাত হতে ফেরত = বিলাতফেরত । এখানে "বিলাত" হলো পূর্বপদ এবং "ফেরত" হলো উওরপদ বা পরপদ
সমাস সাধারণত ছয় প্রকার । যথা :- 

  • দ্বন্ধ সমাস 
  • তৎপুরুষ সমাস 
  • কর্মধারয়  সমাস 
  • দ্বিগু সমাস
  • অব্যয়ীভাব সমাস
  • বহুব্রীহি সমাস 
দ্বন্ধসমাস 

 যে সমাসে প্রত্যেকটি সমস্যমান পদের অর্থের প্রাধান্য থাকে ,তাকে দ্বন্ধ সমাস বলে । যেমন :- 

  • ভালো ও মন্দ =ভালোমন্দ
  • কাগজ ও কলম = কাগজকলম 
তৎপুরুষ সমাস

 পূর্বপদের বিবক্তি লোপ হয়ে যে সমাস হয় এবং পরপদের অর্থই প্রধান রূপে প্রতীয়মান হয় ,তাকেই তৎপুরুষ সমাস বলে । যেমন :- 

  • বিপদকে আপন্ন = বিপদাপন্ন
  • গাছে পাকা = গাছপাকা
কর্মধারায় সমাস

যেখানে বিশেষণ বা বিশেষণভাবাপন্ন পদের সাথে বিশেষ্য বা বিশেষ্যভাবাপন্ন পদের সমাস হয় এবং পরপদের অর্থ টাই প্রধানরূপে প্রতীয়মান হয় ,তাকে কর্মধারায় সমাস বলে । যেমন:-

  • নীল যে আকাশ = নীলাকাশ
  • রক্ত যে কমল = রক্তকমল 
দ্বিগু সমাস 

সমাহার বা মিলন অর্থে সংখ্যা বাচক শব্দের সাথে বিশেষ্য পদের যে সমাস হয় ,তাকে দ্বিগু সমাস বলে । দ্বিগু সমাসে সমাসনিষ্পন্ন  পদটি বিশেষ্য পদ হয় । যেমন:-

  • নবরত্নের সমাহার = নবরত্ন
  • এিপদের সমাহার = এিপদী 
অব্যয়ী ভাব সমাস

 পূর্বপদে অব্যয় থেকে যে সমাস হয় এবং অব্যয়ের অর্থ প্রধান রূপে প্রতীয়মান হয় তাকে অব্যয়ীভাব সমাস বলে । যেমন:-

  • ভাতের অভাব = হাভাত
  • মরণ পর্যন্ত = আমরণ 
বহুব্রীহি সমাস 

যে সমাসে সমস্ত পদে সমস্যমান পদগুলোর কোনটির অর্থ না বুঝিয়ে অন্য কোন ব্যক্তি বা বস্তুকে বোঝায় ,তাকে বহুব্রীহি সমাস বলে । যেমন:- 

  • দশ আনন যার = দশানন
  • নীল বসন যার = নীলবসনা 
Reactions

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

2 মন্তব্যসমূহ

please do not enter any spam link in the comment box .

Emoji
(y)
:)
:(
hihi
:-)
:D
=D
:-d
;(
;-(
@-)
:P
:o
:>)
(o)
:p
(p)
:-s
(m)
8-)
:-t
:-b
b-(
:-#
=p~
x-)
(k)